জমির ফসলের ওশর আদায়ের নিয়ম

ইসলামি বিধান মোতাবেক জমিতে উৎপাদিত ফসলের ওশর আদায় করা ফরয। তাই আমাদের জমির ফসলের ওশর আদায়ের নিয়ম জানা একটি অতিব গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। আমাদের গোচ্ছিত সম্পদ নেসাব পরিমান হলেই কেবল যাকাত আদায় করতে হয়। কিন্তু জমিতে যে ফসলই উদপাদিত হবে তার উপর ওশর আদায় করা ফরয। অন্যথায় সেই ফসল আপনার জন্য হারাম হবে।

ওশর আদায়ের নিয়ম

জমিতে উৎপাদিত ফসলের ওশর সাধারনত দুই ভাবে আদায় করা হয়। আপনি যে ফসল জমিতে রোপন করেছেন তাতে যদি আপনাকে পানির জন্য সেচ দিতে হয় তবে তার নেশাব এক রকম হয় আর যদি বৃষ্টির পানিতে সেই ফসল উৎপাদিত হয় তবে তার নেসাব ভিন্ন।

আপনার জমির ফসল যদি সেচ দিয়ে উৎপাদিত হয় তবে ২০ ভাগের এক ভাগ ওশর আদায় করতে হবে। অর্থাৎ প্রতি ২০ মন ফসলের জন্য ১ মন ওশর বের করতে হবে। আর যদি আপনার ফসল উৎপাদনের জন্য কোন সেচের দরকার না হয় অর্থাৎ বৃষ্টির পানিতে ফসল উৎপাদিত হয় তবে সেই ফসলের ১০ ভাগের এক ভাগ ওশর আদায় করতে হবে। অর্থাৎ প্রতি ১০ মন ফসলের জন্য ১ মন ফসল আপনাকে ওশর হিসেব আদায় করতে হবে।

এখন যদি এমন হয় যে, কিছু সেচ দিতে হয় আবার কিছু বৃষ্টির পানিতে হয় তবে যদি সেচের পরিমান বেশি হয় তবে ২০ ভাগের এক ভাগ ধরতে হবে। আর যদি বৃষ্টির পানি বেশি হয় তবে ১০ ভাগের এক ভাগ ধরে ওশর আদায় করতে হবে।

দয়া করে এটিকে পরিপূর্ণ নিয়ম বা মাসায়ালা ভেবে নিবেন না। এটি শুধুু ওশর সম্পর্কে একটি ধারনা দেওয়ার জন্য লিখা হয়েছে। তাই আরো নির্ভর যোগ্য নিয়ম জানার জন্য দয়া করে আপনার নিকষ্টত একজন আলেমের কাছে পরিপূর্ণ নিয়মটি জেনে নিন। যদি কোন ভুল হয়ে থাকে তবে আমাকে এবং আপনাকে আল্লাহ্‌পাক ক্ষমা করুন।

মন্তব্য