কিভাবে Sync কাজ করে?

আমারা কম্পিউটার বা মোবাইলে যখন ইন্টারনেট ব্রাউজার ব্যবহার করি তখন অনেক এমন ওয়েব সাইট আছে যা আমরা পরবর্তীতে ব্যবহার করার জন্য বুকমার্ক করে রাখি। আবার কোন কোন ওয়েব সাইটে সহজে লগিন করার জন্য ইউজার/পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখি। কিন্তু যখন আপনি আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল থেকে দূরে থাকেন এবং সেই সকল ওয়েবসাইট বা ইউজার/পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে চান, যে গুলো আপনার নিয়মিত ব্যবহার করা মোবাইল বা কম্পিউটারে রয়েছে তখন আপনি সেই সকল ওয়েবসাইট বা ইউজার/পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা থেকে বঞ্চিত হন যদি আপনার মনে না থাকে। কিন্তু আপনি Sync পদ্ধতিটি ব্যবহার করে থাকলে খুব সহজেই তা করতে পারেন।

Sync কি?

আপনি হয়তো Sync শব্দটির সাথে পরিচিত থাকবেন যা synchronize এর সংক্ষিপ্ত রূপ। Sync শব্দটি আপনার স্মার্ট মোবাইল ফোনেও দেখতে পাবেন। আপনি হয়তো আপনার মোবাইলে Sync শব্দটি দেখে থাকলেও ব্যবহার জানা না থাকার কারণে, তেমন কোন গুরুত্বের সাথে বিষয়টির দিকে নজর দেননি। আপনি Sync ব্যবহার করে বেশ কিছু সুবিধা উপভোগ করতে পারেন। যা একটু আগেই উপরে বলেছি। Sync কি তা একটু সহজ ভাবে বুঝতে হলে ছট্ট একটি উদাহরন দিয়ে বুঝাতে হয়। যেমন ধরেন আপনার একটি মেমোরি কার্ড রয়েছে যেখানে আপনি এমন সব প্রয়োজনীয় জিনিষ রাখেন যা আপনার নিত্যদিন প্রয়োজন হয়। এখন আপনার কোন প্রয়োজন হলেই যেকোন জায়গায় যেকোন অবস্থায় আপনি আপনার মেমোরি কার্ডটি ব্যবহার করে আপনার প্রয়োজনীয় কাজ করে নিতে পারেন। অর্থাৎ আপনার কাছে যতক্ষন আপনার মেমোরি কার্ডটি রয়েছে ততক্ষনই মেমোরি কার্ডে থাকা সকল প্রয়োজনীয় ফাইলগুলোতে আপনি যেকোন সময় অনায়েসে প্রবেশ করতে পারেন। ঠিক তদ্রুপ Sync ব্যবহার করে আপনি যেকোন জায়গা থেকে যেকোন সময় আপনার পূর্ব সেভ রাখা সকল তথ্য ব্যবহার করতে পারবেন। তবে মেমোরি কার্ড এর সাথে উদাহরনটি ঠিক একুইরেট হয় না। শুধু বোঝার জন্য আমি তা দিয়ে উদাহরন দিলাম। বলতে গেলে মেমোরি কার্ডের চাইতে, Sync এ বেশি ‍সুবিধা পেয়ে থাকবেন। কারণ Sync সম্পূর্ণটাই অনলাইনে সেভ থাকে।

কিভাবে Sync কাজ করে?

Sync এর কি কাজ, তার একটি প্রকৃত ধারনা উপরেই আলোচনা করেছি। এখন Sync কিভাবে কাজ করে তার একটি সুন্দর ব্যবহারের মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

আমারা যারা ইন্টারনেট ব্রাউজার ব্যবহার করি যেমন ফায়ারফক্স, গুগলক্রোম ইত্যাদি। এই সব ব্রাউজারে আপনি Sync ব্যবহার করার সুবিধা পাবেন। একটি ব্রাউজার দিয়ে উদাহরন দিলেই অন্যান্য ব্রাউজার গুলোতে আপনি সহজেই Sync এর ব্যবহার করতে পারবেন।

ফায়ারফক্সে যেভাবে Sync ব্যবহার করবেন

Sync ব্যবহার করার জন্য আপনার একটি ইমেলের দরকার হবে। এর জন্য আপনি আপনার ইমেলে লগিন করে নিতে পারেন। কারন Sync একটিভ করার জন্য আপনার ইমেল Authentication প্রয়োজন হবে। Sync চালু করার জন্য ফায়ারফক্সের ডান কর্নারে নিচের ছবির মতো দখতে পাবেন।

উপরের ছবিতে ১ নং লিখা দ্বারা নির্দেশ করা লাল বৃত্ত দিয়ে ঘেরা আইকোনে ক্লিক দিন। এর পর একটি মেনু বের হবে যা থেকে ২ নং লিখা দ্বারা লাল বৃত্ত দিয়ে ঘেরা Sign in to Sync তে ক্লিক করুন। এরপর নিচের ছবির মতো নতুন একটি ট্যাব ওপেন হবে।

sync-2

এই খানে বৃত্ত দিয়ে ঘেরা Sign in.. অপশনে ক্লিক করুন। এর পর নিচের ছবির মতো দেখতে পাবেন।

sync-3

আপনি যেহেতু পূর্বে Sync ব্যবহার করেন নাই সেক্ষেত্রে আপনাকে নতুন একটি একাউন্ট খুলতে হবে। এর জন্য আপনি লাল কালি দ্বারা নির্দেশিত Create an account এ ক্লিক দিন। এর পর নিচের ছবির মতো নতুন একটি ফর্ম দেখতে পাবেন।

sync-4

এখানে আপনার ইমেল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে, একটি নতুন একাউান্ট খুলুন। পাসওয়ার্ডের ক্ষেত্রে আপনার ইমেলের পাসওয়ার্ড নই, নতুন ভিন্ন কোন পাসওয়ার্ড দিন, যা শুধু Sync একাউন্টের জন্যই ব্যবহার করবেন। রেজিষ্ট্রেশন করার পর আপনার ইমেলে একটি কনফারমেশন ইমেল যাবে। ইমেল কনফার্ম করার পর লগিন পেজে গিয়ে লগিন করবেন। লগিন করা সম্পূর্ণ হলে আপনাকে নিচের ছবির মতো দেখাবে।

sync-5

আপনার Sync একাউন্টে লগিন করার পর উপরের ছবির মতো দেখতে পেলে বুঝবেন আপনি সঠিকভাবে আপনার ফায়াফক্স Sync এর জন্য প্রস্তুত করতে পারছেন।

এখন আপনি যেসব সাইট বুকমার্ক করে রাখবেন বা ইউজার/পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখবেন তা অটোমেটিক Syncing হতে থাকবে । তবে পাসওয়ার্ড Sync এর জন্য ডিফল্টভাবে সেট করা থাকে না। আপনি কোন কোন অপশন গুলো Sync করতে চান তা আপনি নিজে থেকেই সেট করতে পারেন। এর জন্য ফায়ারফক্স ব্রাউজারের Tools—>Options বা সারাসরি যেতে চাইলে ব্রাউজারে ট্যাবে about:preferences#sync লিখে ইন্টার চাপ দিন। তাহলে নিচের ছবির মতো দেখতে পাবেন।

উপরের ছবিতে Sync Settings এর নিচে যে কয়েকটি অপশন দেখতে পাচ্ছেন যেমন- Bookmarks, History, Open tabs, Add-ons, Logins, Options এই গুলি থেকে যা যা আপনি Sync করতে চান, তাতে শুধু টিক মার্ক দিয়ে দিন। তাহলে সেই গুলো অটোমেটিক Sync হয়ে যাবে। টেষ্ট করা জন্য আপনি কয়েকটি ওয়েবসাইট বুকমার্ক ও কিছু সাইটে লগিন করে পাসওয়ার্ড সেভ করতে পারেন। এর পর অন্য আরেকটি ডিভাইস যেমন কম্পিউটার বা আপনার স্মার্ট ফোনে ফায়ারফক্স ওপেন করে Sync অপশনে গিয়ে আপনার Sync ইমেল এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগিন করুন। লগিন করা সম্পূর্ন হলে দেখবেন খুবই অল্পসময়ের মধ্যে আপনি কিুছুক্ষন পূর্বে অন্য ডিভাইসের ফায়ারফক্স ব্রাউজারে যেগুলো সেভ করে রেখেছিলেন তা অটোমেটিক আপনার সদ্য ব্যবহার করা ফায়ারফক্স ব্রাউজারে চলে এসেছে নিচের ছবির মেতো।

এই ভাবে Sync করে আপনি খুব সহজেই একই বুকমার্ক সহ অন্যান্য সুবিধা গুলো একাধিক ডিভাইসে ব্যবহার করতে পারেন।

মন্তব্য